আন্তর্জাতিক জাতীয় রাজনীতি

কলকাতায় কলেজ পড়ুয়ারাও শুনলো বঙ্গবন্ধুর সেই ভাষণ

কলকাতার ইসলামিয়া কলেজের (বর্তমানে যার নাম মওলানা আজাদ কলেজ) ছাত্র ছিলেন বাংলাদেশের জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। এই কলেজ থেকেই রাজনীতির পাঠ শুরু হয়েছিল মহান এই নেতার। তখন তিনি ছিলেন ছাত্রনেতা। আড়াই দশক পর ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ তার ঐতিহাসিক ভাষণে আন্দোলিত হয় বাংলাদেশের জনতা। শুরু হয় মুক্তিযুদ্ধ। ‘জাতির মুক্তিসনদ’ ঘোষণার সেই ভাষণ, বিশ্ব ঐতিহ্যের দলিল হিসেবে পেয়েছে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি। কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীর সেই ভাষণ শুনলেন এই কলেজের শিক্ষার্থীরা। শনিবার দুপুরে কলেজের ভিড়ে ঠাসা সভাঘরে মিনিট পনেরোর সেই ভাষণের ভিডিও দেখলেন তারা। তার আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন কলকাতায় বাংলাদেশের উপ-রাষ্ট্রদূত তৌফিক হাসান এবং আজাদ কলেজের অধ্যক্ষ বিজয় কৃষ্ণ রায়। বঙ্গবন্ধুর সেই ঐতিহাসিক ভাষণের ইউনেস্কোর স্বীকৃতি উপলক্ষে বাংলাদেশের উপ-রাষ্ট্রদূতের উদ্যোগে হয় এই অনুষ্ঠান।

আগুন ঝড়ানো সেই ভাষণ শুনে পড়ুয়াদের মন্তব্য, বাংলাদেশের রাষ্ট্রনায়ক যেই কলেজে পড়েছেন, সেই কলেজে এখন আমরা পড়ছি। এটাই আমাদের গর্ব। পরে বিকালে পার্ক সার্কাস সাত মাথা মোড় থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সরণি হয়ে এক পদযাত্রা হয়। শেষে ছিল উপ-দূতাবাস চত্বরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সেখানে অংশ নেন বাংলা একাডেমির উপ-পরিচালক ড. শাহাদাত হোসেন নিপু, উপ-দূতাবাসের প্রথম সচিব (প্রেস) মোফাক্কারুল ইকবাল প্রমুখ।

ফেসবুক মতামত

জন মত দিয়েছেন

Show Buttons
Hide Buttons

সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।


সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।