বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

দেশে ‘তৈরি’ হচ্ছে নোকিয়া এইচটিসি সনি !!

ছোট্ট একটিমাত্র কক্ষেই মাদারবোর্ড, ডিসপ্লে, কি-বোর্ড, ব্যাটারি ইত্যাদি সংযোজিত হয়ে তৈরি হলো হ্যান্ডসেট। সেটের গায়ে লাগলো ব্র্যান্ড নামে আইএমইআই যুক্ত সিল। এরপর ভেতর-বাহিরের মোড়কজাত হয়ে ‘তৈরি’ নোকিয়া, এইচটিসি ও সনি। আর যথারীতি তা শপিংমলে দোকানে বাজারজাত হয়ে মানুষের হাতে হাতে।

বিস্ময় জাগছে? বাংলাদেশে সংযোজিত হচ্ছে নোকিয়া, এইচটিসি, সনি! তাও একটি কক্ষে এই যজ্ঞ!

হ্যা, শুনছেন ঠিকই তবে এসব যন্ত্রাংশ নকল, মোড়ক নকল, নকল আইএমইআই। পুরো কার্যক্রমই একটি সংঘবদ্ধ জালিয়াতি চক্রের। রাজধানীর হাতিরপুলে মোতালেব টাওয়ারের তৃতীয় তলার একটি কক্ষে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছিল নামীদামী এসব ব্র্যান্ডের নকল হ্যান্ডসেট সংযোজন।

বৃহস্পতিবার রাতে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক কমিশন (বিটিআরসি) ও র‌্যাবের যৌথ অভিযানে হাতেনাতে ১০ ব্যক্তিকে এসব ফোন সংযোজন করতে থাকা অবস্থায় ধরা হয়।

জব্দ করা হয় ১৭৫৭টি নকল ও ভুল আইএমইআই যুক্ত হ্যান্ডসেট ও বিভিন্ন যন্ত্রাংশ, আইএমইআই সিল। আটককৃত ১০ জনকে দেয়া হয় বিভিন্ন মেয়াদের জেল।

জব্দকৃত এসব নকল হ্যান্ডসেট রাতেই পুড়িয়ে দেয় বিটিআরসি।

বিটিআরসি জানায়, ‘আটককৃতরা নোকিয়া, এইচটিসি ও সনি ব্র্যান্ডের বিভিন্ন মডেলের মতো দেখতে হুবহু নকল সেট তৈরি করছিল। দীর্ঘদিন ধরে একটি সংঘবদ্ধ চক্র জালিয়াতির মাধ্যমে দেশের নিরাপত্তার জন্য হুমকি নকল ও ভুল আইএমইআই যুক্ত মোবাইল ফোন হ্যান্ডসেট আমদানি, বিধি বহির্ভূতভাবে দেশের অভ্যন্তরে যন্ত্রাংশ সংযোজনের মাধ্যমে নকল সেট তৈরি ও বাজারজাত করে আসছিল’

এর আগে ২০১৬ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর এক অভিযানে মোতালেব প্লাজা হতে শত শত নকল বা ক্লোন হ্যান্ডসেট জব্দ করে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন(বিটিআরসি)। এসবের মধ্যে নামীদামী সব ব্র্যান্ডেরই মোবাইল পাওয়া যায়।

তখন নকল মোবাইল বিক্রির অপরাধে চার জনকে এক বছর হতে তিন মাস পর্যন্ত কারাদণ্ড দেয়া হয়। জরিমান করা হয় প্রায় অর্ধ লাখ টাকা।

তারও আগে রাজধানীর অভিজাত শপিং মল বসুন্ধরা সিটি হতে হাজারো অবৈধ ও নকল মোবাইল হ্যান্ডসেট জব্দ করা হয়েছিল। তখন চোরাই ও নকল হ্যান্ডসেট বিক্রির অপরাধে প্রায় ১৫ টি দোকানকে ২০ হাজার থেকে এক লাখ টাকা পর্যন্ত জরিমানাসহ করা হয়।

ফেসবুক মতামত

জন মত দিয়েছেন

Show Buttons
Hide Buttons

সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।


সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।