অর্থনীতি

দেড় কোটি ডলার ফেরত আনার প্রক্রিয়া শুরু

রিজার্ভ চুরি
লেখকঃ সুশান্ত

রিজার্ভের চুরি যাওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলারের মধ্যে দেড় কোটি ডলার ফিলিপাইন থেকে ফেরত আনার প্রক্রিয়া শুরু করেছে সফররত বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধিদল। প্রতিনিধিদলের ঘনিষ্ট সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে।

ওই সূত্র জানিয়েছে, ফিলিপাইনের বিচার বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী ওই পরিমাণ অর্থের মালিকানা দাবি করে শুক্রবার আদালতে মামলার সঙ্গে জমা দেয়ার জন্য তারা একটি হলফনামা তৈরি করেছেন।

নিউ ইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে চুরি যাওয়া অর্থ ফেরত আনতে চলতি সপ্তাহেই ম্যানিলায় যান প্রতিনিধিদলটি। তাদের চারদিনের সফর শুক্রবার শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। প্রতিনিধিদলে রয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের আর্থিক গোয়েন্দা বিভাগের কর্মকর্তা দেবপ্রসাদ দেবনাথ ও আবদুর রব এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আইনজীবী আজমালুল হোসাইন।

গত ৪ ও ৫ই ফেব্রুয়ারি সুইফট কোড হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকে রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি করে ফিলিপাইনে স্থানান্তর করা হয়।

এর মধ্যে এক কোটি ৮০ লাখ ডলারের হদিস পাওয়া গেছে, যার দেড় কোটি ডলার ফিলিপাইনের বিচার বিভাগের কাছে রয়েছে। আর বাকিটা দেশটির ক্যাসিনো নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের হাতে রয়েছে। ক্যাসিনোর ওই অর্থ উদ্ধারের জন্য ভিন্ন প্রচষ্টা চালাতে হবে।

তৈরি করা হলফনামায় ফিলিপাইনের কেন্দ্রীয় ব্যাংককে লেখা নিউ ইয়র্ক ফেডের একটি চিঠির কথা উল্লেখ করা হয়েছে, যেখানে বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকেই ওই অর্থ চুরি হয়েছে বলে রিজার্ভ ব্যাংক বলেছে।

ফিলিপাইনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ দেড় কোটি ডলার এক মাসের মধ্যেই ফেরত পাওয়া যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

ওই সময় শ্রীলংকার একটি `ভুয়া` এনজিওর নামে দুই কোটি ডলার সরিয়ে নেয়া হলেও বানান ভুলের কারণে সন্দেহ হওয়ায় শেষ মুহূর্তে তা আটকে যায়।

ফেসবুক মতামত

জন মত দিয়েছেন

Show Buttons
Hide Buttons

সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।


সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।