আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

নতুন কৌশলে রাস্তায় নামছে চালক বিহীন উবার

যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে স্বয়ংক্রিয় গাড়ি বিভাগের ক্ষেত্রে অন্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে উবার এবার নতুন কৌশলে রাস্তায় নামার উদ্যোগ নিয়েছে। তারা সুইডেনের গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ভলভোর সঙ্গে চুক্তি করছে। শুধু চুক্তিই শেষ নয়, তারা ওই প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ২৪ হাজার স্বয়ংক্রিয় গাড়ি কেনার পরিকল্পনা করছে।এমনকি অ্যাপভিত্তিক গাড়ি সেবা দেওয়ার পাশাপাশি নিজস্ব গাড়ি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবেও কাজ করবে উবার। ভলভোর সঙ্গে এ চুক্তি হলে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালিতে স্বয়ংক্রিয় গাড়ি বিভাগের ক্ষেত্রে অন্য প্রতিষ্ঠানের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবে উবার। বর্তমানে সিলিকন ভ্যালির বড় বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো স্বয়ংক্রিয় গাড়ি তৈরিতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা শুরু করেছে। স্বয়ংক্রিয় গাড়ির ক্ষেত্রে নিজস্ব বিভাগ তৈরি করেছে উবার। ওই বিভাগের তৈরি সফটওয়্যার ভলভোর গাড়ির সঙ্গে যুক্ত থাকবে।

ভলভো কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে বলেছে, চুক্তি অনুসারে তারা ২০১৯ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে স্বয়ংক্রিয় প্রযুক্তি সুবিধার ফ্ল্যাগশিপ এক্সসি ৯০ এসইউভি সরবরাহ করবে। তারা মোট ২৪ হাজার গাড়ি সরবরাহ করবে। যে স্বয়ংক্রিয় গাড়ি চালানোর প্রযুক্তি ব্যবহারের কথা বলা হচ্ছে তা এখনো তৈরি হয়নি। উবারের অ্যাডভান্সড টেকনোলজিস গ্রুপের অধীনে ওই প্রযুক্তি তৈরি হচ্ছে। উবার যদি ২৪ হাজার গাড়ির ওই ফরমাশ দিয়ে থাকে, তবে তা ভলভো ইতিহাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় ফরমাশ। গাড়িশিল্পে এটি সবচেয়ে বড় ক্রয়াদেশের ঘোষণা। বর্তমানে প্রতি প্রান্তিকে ৬০ কোটি মার্কিন ডলার লোকসানে থাকা উবারের জন্যও এটি হবে প্রথম বাণিজ্যিক গাড়ি বাজারে ছাড়ার ঘটনা। ভলভো এক্সসি ৯০ গাড়ি ৫০ হাজার মার্কিন ডলারে বিক্রি হয়। প্রায় এক বছরের বেশি সময় ধরে ভলভোর গাড়ি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছে উবার। এ পদ্ধতি পরীক্ষার সময় গাড়ি অবশ্য পুরোপুরি চালকবিহীন থাকে না। যুক্তরাষ্ট্রের টেম্প, অ্যারিজোনা ও পিটসবুর্গে গাড়ি পরীক্ষার সময় সামনের সিটে একজন চালককে বসে থাকতে দেখা যায়। স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতি ব্যর্থ হলে গাড়ির নিয়ন্ত্রণ নেন চালক।উবারের অটোমোবাইল অ্যালায়েন্সের প্রধান জেফ মিলার বলেন, প্রথম দিন থেকেই লক্ষ্য ছিল এমন গাড়িতে বিনিয়োগ করা, যা যথেষ্ট মানসম্মতভাবে তৈরি। উবারের লক্ষ্য হচ্ছে, স্বয়ংক্রিয় ও চালকবিহীন এ গাড়িগুলো উবার অ্যাপ দিয়ে ডাকা যাবে এবং এগুলো যাত্রীকে নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছে দেবে। মিলার বলেন, গাড়িচালককে যদি সরানো যায়, তবেই এটা ব্যবসা হিসেবে ধরা যাবে।

ভলভোর গাড়ি কেনার জন্য খরচের বিষয়টি প্রকাশ করেনি উবার কর্তৃপক্ষ। তবে গাড়ি কেনার বিষয়টি তাদের বিশাল বিনিয়োগ পরিকল্পনার অংশ। এ ছাড়া ব্যবস্থাপকদের গাড়ি ভাড়া নিয়ে উবারের দীর্ঘদিনের ব্যবসা মডেলেও বড় পরিবর্তন আসবে এতে। এখন উবারের নিজস্ব গাড়ি থাকবে। ২০১০ সালে ফোর্ডের কাছ থেকে ভলভো কিনে নেয় চীনের প্রতিষ্ঠান ঝেঝিয়াং গিলি হোল্ডিং গ্রুপ। সুইডেনের তোরলেনডা প্ল্যান্টে এসইউভি তৈরির পরিকল্পনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। ডিলারদের কাছে যে দামে গাড়ি বিক্রি করে, সেই একই দামে উবারকে গাড়ি দেওয়ার পরিকল্পনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। উবারের প্রতিদ্বন্দ্বী লিফট এ বছরেই মার্কিন প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেটের ওয়েমো বিভাগের সঙ্গে চুক্তি করেছে। লিফটের পক্ষ থেকেও স্বয়ংক্রিয় গাড়িবহর যাত্রী পরিবহনে ব্যবহারের পরিকল্পনার কথা জানানো হয়েছে।

ফেসবুক মতামত

জন মত দিয়েছেন

Show Buttons
Hide Buttons

সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।


সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।