জাতীয় শিক্ষা

প্রশ্ন ফাঁসের ভয়ংকর বাজার!

দেশে এখন খুব কম পাবলিক পরীক্ষা আছে, যার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ ওঠেনি! বিসিএস, মেডিকেল থেকে শুরু করে প্রাথমিক সমাপনী—হেন পরীক্ষা নেই যার কোনো না কোনো প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়নি! এটা বছরের পর বছর চলেই আসছে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে সরকার গা করেনি। সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে তদন্ত হয়েছে এবং কয়েকজনকে অভিযুক্ত করে মামলাও হয়েছে। এবং দেখা গেছে, প্রশ্ন প্রণয়ন থেকে শুরু করে সরকারি প্রেসে ছাপার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের নিয়েই ফাঁসচক্রটি গঠিত। কিন্তু অনেক সময় নীতিনির্ধারকেরা সত্য ‘অস্বীকার’ করে সমস্যা আড়ালের চেষ্টা করে গেছেন। এতে প্রশ্ন ফাঁসকারী চক্র আরও উৎসাহিতই হয়েছে।

দেশে শিক্ষার মান নেমে গেছে। ফাঁস করা প্রশ্নের ‘পরীক্ষা’র কারণে তা আরও অবনতির দিকে ধাবিত হচ্ছে। এটা মোটেই বিশ্বাস্য নয় যে প্রশ্ন ফাঁস ঠেকানোয় কোনো নিশ্চিত পদ্ধতি উদ্ভাবন করা যাবে না। শীর্ষ পর্যায়ে সদিচ্ছা ও বাস্তবায়নের পর্যায়ে দক্ষ ও সৎমানুষকে এ কাজে জড়িত করতে হবে। স্বয়ং শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, দেশের কোচিং-বাণিজ্যের পরিমাণ টাকার অঙ্কে প্রায় ৩২ হাজার কোটি টাকা। প্রশ্ন ফাঁস শিক্ষা-বাণিজ্যিকীকরণের সবচেয়ে নিকৃষ্ট ধাপ। তাই হাত দিতে হবে গোড়ায়। এমন পরীক্ষাপদ্ধতি চয়ন করতে হবে, যাতে প্রশ্ন ফাঁসের সুযোগ না থাকে। প্রাথমিক ও জুনিয়র সমাপনী পরীক্ষা তুলে দিলে শিক্ষার্থীরা আনন্দের জন্য পড়বে, সার্টিফিকেটের জন্য নয়। তাতে করে ওই স্তরে প্রশ্ন ফাঁস ঠেকানো যাবে। তবে উচ্চতর স্তরে একাধিক প্রশ্নপত্র তৈরি করে পরীক্ষার দিন লটারির মাধ্যমে প্রশ্নের সেট বাছাই করা যায়। শেষ বিচারে শিক্ষাব্যবস্থার স্তরে স্তরে সৎ ও যোগ্য ব্যক্তিদের ক্ষমতায়নের বিকল্প নেই। ব্যর্থতাটা শিক্ষা প্রশাসনেরই। তাদের অস্বীকারের সংস্কৃতি, তদন্ত করে শাস্তির প্রক্রিয়ায় লেগে না থাকা এবং দায়সারা প্রতিকারের ফল আজ এত বড় হয়ে দেখা দিয়েছে। শিক্ষা কর্মকর্তা থেকে শুরু করে শিক্ষক, অভিভাবক সবারই এই ব্যাধি দূর করতে জেগে ওঠা দরকার।

ফেসবুক মতামত

জন মত দিয়েছেন

Show Buttons
Hide Buttons

সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।


সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।