ডাক্তারি পরামর্শ লাইফস্টাইল

ব্যায়ামের কাজ করবে ভিটামিন ‘সি’

ভিটামিন ‘সি’
লেখকঃ সুমন খান

মেদবহুল ও স্থূলকায় মানুষের জন্য নিয়মিত ব্যায়াম অত্যন্ত জরুরি হলেও অধিকাংশের মধ্যে তা এড়িয়ে চলার প্রবণতা দেখা যায়। এ ধরনের ব্যায়ামবিমুখ ব্যক্তির জন্য বিকল্প ব্যবস্থার নিদান দিয়েছেন গবেষকরা। তারা জানিয়েছেন, প্রতিদিন নিয়মিত ভিটামিন ‘সি’ গ্রহণ হয়ে উঠতে পারে মেদবহুল ও স্থূলকায় মানুষের হৃদযন্ত্রের জন্য ব্যায়ামের সমান কার্যকরী।

মেদবহুল ও স্থূলকায় মানুষের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ও প্রবণতা দুই-ই থাকে বেশি। ঝুঁকিটি এড়ানোর জন্য চিকিত্সকরা এ ধরনের ব্যক্তিদের নিয়মিত ব্যায়ামের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু মেদবহুল ও স্থূলকায়দের ভেতর ৫০ শতাংশেরও বেশি মানুষের ক্ষেত্রে দেখা যায় ব্যায়ামে চরম অনীহা।

যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব কলোরাডোর গবেষকরা জানিয়েছেন, মেদবহুল ও স্থূলকায় প্রাপ্তবয়স্কদের হূদযন্ত্রের ওপর ব্যায়ামের সমান ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে ভিটামিন ‘সি’। এ ধরনের মানুষের রক্তনালিতে সাধারণত এন্ডোথেলিন-১ (ইটি-১) নামে এক ধরনের প্রোটিনের উপস্থিতি ও সক্রিয়তা লক্ষ করা যায়। রক্তে এর মাত্রা বেড়ে গেলে একসময় ধমনিতে সংকুচিত হয়ে পড়ে রক্ত চলাচলের পথ। ফলে নালিতে রক্তপ্রবাহ কমে গিয়ে একসময় বেড়ে যায় হূদরোগের শঙ্কা।

সাধারণত ব্যায়ামের প্রভাবে কমে যায় ইটি-১-এর কার্যকারিতা। কিন্তু প্রতিদিনের নিয়মিত রুটিনে ব্যায়াম যোগ করা একই সঙ্গে চ্যালেঞ্জিং ও দুঃসাধ্য।

রক্তনালির কার্যকারিতা বাড়ানোয় ভিটামিন ‘সি’র ইতিবাচক ভূমিকার সুনাম ছিল আগে থেকেই। আলোচ্য গবেষণাটির মূল বিষয়বস্তু ছিল, ইটি-১-এর প্রভাব কমানোয় কতটুকু কার্যকর ভূমিকা রাখতে পারে তা।

বিশেষজ্ঞরা দেখতে পান, প্রতিদিন ৫০০ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘সি’ রক্তনালিতে ইটি-১-এর প্রভাব ততটাই কমাতে পারে, যতটা কমে আসে নিয়মিত হাঁটলে। সেক্ষেত্রে, মেদবহুল ও স্থূলকায় মানুষের হূদরোগ প্রতিরোধ কার্যকর নিদান হয়ে উঠতে পারে নিয়মিত ভিটামিন ‘সি’ গ্রহণ।

৫০ জন স্বেচ্ছাসেবকের ওপর গবেষণার ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্তে পৌঁছান গবেষকরা। তবে তারা জানিয়েছেন, রক্তনালির ‘এন্ডোলিথিয়াল ফাংশন’ বজায় রাখার জন্য ব্যায়াম ও ভিটামিন ‘সি’ দুটোই একসঙ্গে গ্রহণ আরো অনেক বেশি কার্যকর। রক্তনালির এন্ডোলিথিয়াল ফাংশন বলতে বোঝায়, এতে রক্তের স্বাভাবিক প্রবাহ ও প্রয়োজন অনুযায়ী এর প্রসারণ— দুটোই একসঙ্গে বজায় রাখার ক্ষমতাকে।

গবেষণার ফলাফল প্রথমবারের মতো উপস্থাপন করা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় গত সপ্তাহে অনুষ্ঠিত আমেরিকান সাইকোলজিক্যাল সোসাইটির বার্ষিক সভায়। তবে এখন পর্যন্ত পরীক্ষিত কোনো জার্নালে প্রকাশ না হওয়ায় গবেষণার ফলাফলকে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত বলেই ধরে নিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

ফেসবুক মতামত

জন মত দিয়েছেন

Show Buttons
Hide Buttons

সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।


সর্বশেষ খবর জানতে ফেসবুক এ আমাদের সাথে থাকুন

আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন খবর সংগ্রহ করে থাকি আপনারই জন্য। আমরা চাই আপনারা জানুন "সদ্য সংবাদ, সবার আগে"।